পাতা

অফিস সম্পর্কিত

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীন উপজেলা পর্যায়ের প্রাথমিক শিক্ষা কাযক্রম সমন্বয় ও সম্পাদনের কার্যালয়।

 

 

ঠিক কখন বা কোথায় শিক্ষা প্রশাসনের সূত্রপাত ঘটেছিলো তা কেউ বলতে পারে না, কারণ কখন বা কোথায় মানুষ নিজেদের জনসমষ্টির সদস্য হিসেবে, জনসাধারণ হিসেবে মনে করেছিলো তাও কেউ জানে না। প্রায় দুই হাজার বছরেরও পূর্বে গ্রীক দার্শনিক এরিষ্টটল বলেছিলেন,‘‘অনেকগুলো বিষয়ের দেখাশুনা করা এক ব্যক্তির পক্ষে সহজ নহে, তাকে অবশ্যই কয়েকজন অধঃস্তন ব্যক্তি নিয়োগ করতে হবে’’ শিক্ষা পদ্ধতি প্রশাসনিক ক্ষেত্র দীর্ঘ পথ পরিক্রমায় পরিবর্তিত হয়েছে বারবার প্রাচীনকালে গোত্রভিত্তিক শিক্ষা ব্যবস্থার সঠিক কোন ইতিহাস আমরা পাই না প্রাচীন মেসোপটেমিয়ার শহরসমূহে একদল পুরোহিত ব্যবস্থাপনার কার্য সম্পন্ন করতেন তাদেরকে বানিজ্য পথের পরিকল্পনা প্রণয়ন, শ্রমিক, সৈনিক শিক্ষকদের কার্যধারা সংগঠন করতে হতো তারা ব্যবস্থাপনার পদ্ধতি উন্নয়নের জন্য সংকেত লেখনি উদ্ভাবন করেন নথিপত্র সংরক্ষনের ব্যবস্থা করেন। দেড়  সহস্রা্ধিক বছর পূর্বে চীনে লাও-জু (Lao -Tzu)  ব্যবস্থাপনা পদ্ধতি শিক্ষাক্ষেত্রে ব্যাপক অবদান রাখে প্রাচীন রোমের সাতপাহাড়ের রেসিয়ান পললীতেও এক প্রকার শিক্ষা ব্যবস্থাপনার বিকাশ পরিলক্ষিত হয়

প্রাচীন ভারতে কেন্দ্রীয়ভাবে কোন শিক্ষা প্রশাসনিক ব্যবস্থা ছিল না। আর্য ঋষিরা নীপবনে তপস্যারত থাকতেন এবং বিভিন্ন যোগ সাধনার পদ্ধতিগত উন্নয়ন ঘটাতে সক্ষম হন পরবর্তীতে টোলভিত্তিক শিক্ষা ব্যবস্থার ব্যক্তি কেন্দ্রিক শিক্ষা ব্যবস্থাপনা ছিল মোঘলদের সময় কেন্দ্রিয়ভাবে কিছুটা শিক্ষা প্রশাসনের বিকাশ ঘটে বিভিন্ন খানকাহ মন্দিরকে শিক্ষাকার্যে নিস্কর জমি প্রদান করে মোঘলরা শিক্ষাক্ষেত্রে বিশেষ অবদান রাখেন

বৃটিশ ভারতে সর্বপ্রথম মেকলের শিক্ষাবিষয়ের সুপারিশে সরকার কর্তৃক শিক্ষা ব্যবস্থা নিয়ন্ত্রনের সুপারিশ করা হয় উডের ডেসপাচে শিক্ষার প্রশাসনিক কাঠামো সুবিন্যস্ত হয় হান্টার কমিশনে পরবর্তীতে বিভিন্ন শিক্ষা বিষয়ক সরকারী সুপারিশে ভারতে শিক্ষাপ্রশাসন একটি স্বতন্ত্র প্রশাসনিক বিষয়ে পরিগণিত হয়

১৯৪৭ সালে পাকিস্তান সৃষ্টি হতেই আতাউর রহমান শিক্ষা কমিশন হামিদুল হক শিক্ষা কমিশনে শিক্ষা প্রশাসনের সামান্য সংস্কার করা হয়

ছবি



Share with :

Facebook Twitter